টেকনাফে আরও এক চিকিৎসক আইসোলেশনে

73

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরও এক নারী চিকিৎসক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।
সেই বর্তমানে চট্টগ্রাম হাসপাতালে আইসোলেশনে রয়েছেন।তিনি জাতিসংঘের অভিবাসন সংস্থা আইওএমের নিয়োগ প্রাপ্ত টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গাইনী বিশেষজ্ঞ হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

এনিয়ে টেকনাফ উপজেলায় পাঁচজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে।এর মধ্যে দুই নারী চিকিৎসকসহ তিন পুরুষ রয়েছে।দুই নারী চিকিৎসক চট্টগ্রামে ও তিন পুরুষ রামু ডেডিকেটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.টিটু চন্দ্র শীল।তিনি বলেন,আইওএমের পক্ষ থেকে নিয়োগ প্রাপ্ত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত আরও এক নারী চিকিৎসক করোনা রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে।

এরআগে ঔই চিকিৎসকসহ বেশ কয়েকজনের নমুনা সংগ্রহ করে করোনা পরীক্ষার জন্য কক্সবাজার মেডিকেল ল্যাবে পাঠানো হয়েছে।শুক্রবার দুপুরে রিপোর্ট পাওয়া যায়।এর মধ্যে এক নারী চিকিৎসকের করোনা পজেটিভ এসেছে।আক্রান্ত চিকিৎসক বর্তমানে চট্রগ্রামে অবস্থান করছেন।

করোনা রির্পোট পজিটিভ আসার খবর পেয়ে সে সেখানে আইসোলেশনে ভর্তি হয়েছেন।এই পর্যন্ত ৩০০জনের নমুনা সংগ্রহ করে করোনা টেস্টের জন্য কক্সবাজার মেডিকেল ল্যাবে পাঠানো হয়েছে।এর মধ্যে দুই নারী চিকিৎসকসহ পাঁচজনের পজিটিভ,বেশির ভাগই নেগেটিভ এসেছে।কয়েকজনের রিপোর্ট এখনও হাতে পাওয়া যায়নি।বাকীদের রিপোর্ট আসলে বিস্তারিত বলা যাবে।

তিনি আরও বলেন,আতঙ্কিত না হয়ে,আমরা সকলে সচেতন হয়ে করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ করবো।