২০০০ কিলোমিটার দূরে হামলার ক্ষমতা আছে ইরানের, নাগালেই ইসরায়েল

1236

মার্কিন বিমান হামলায় কাসেম সোলাইমানি হত্যার প্রতিশোধ নিতে আজ বুধবার সকালে ইরাকে অবস্থিত মার্কিন দু’টি সামরিক ঘাঁটিতে হামলা চালিয়েছে ইরান। এ ঘটনায় অন্তত ৮০ জন নিহত এবং আরো দুই শতাধিক সেনা আহত হয়েছেন।

এরপর ইরানের তরফ থেকে হুমকি দিয়ে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি করতে চাইলে যুদ্ধ পুরো মধ্যপ্রাচ্যে ছড়িয়ে পড়বে এবং আক্রমণ হবে মার্কিন মূল ভূখণ্ডেও। সেই হুমকির পর থেকেই রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে দাঁড়িয়েছে, ইরানের ক্ষেপণাস্ত্রের সক্ষমতার বিষয়টি। অর্থাৎ ইরান ঠিক কতদূর পর্যন্ত হামলা চালাতে পারে।

জানা গেছে, ইরানের শাহাব-১ ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানতে পারবে তিনশ কিলোমিটার দূরে। এছাড়া শাহাব-২ আঘাত করতে পারে পাঁচশ কিলোমিটার পর্যন্ত। ক্বিয়াম-১ ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত করতে পারবে সাড়ে সাতশ কিলোমিটার দূরে এবং ফতেহ-১১০ এর পরিসীমা তিনশ থেকে পাঁচশ কিলোমিটার।

আরো জানা গেছে, জুলফিকার হামলা চালাতে পারবে সাতশ কিলোমিটারের মধ্যে। সবচেয়ে বেশি পরিসীমার ক্ষেপণাস্ত্র শাহাব-৩ আঘাত করতে পারবে দুই হাজার কিলোমিটার দূর পর্যন্ত।

অথচ ইরান থেকে ইসরায়েলের দূরত্ব মাত্র এক হাজার সাতশ কিলোমিটার। মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় মিত্র ইসরায়েলের পুরো এলাকা শাহাব-৩ এর আওতায় রয়েছে সেই হিসেবে।

ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র আফগানিস্তান, কাতার, বাহরাইন, কুয়েত, ইরাক, মিসর, তুরস্ক এবং ইউরোপের রোমানিয়া, বুলগেরিয়া ও গ্রিসের মতো দেশে। এ দেশগুলোর মধ্যে মিসর ছাড়া সব দেশেই যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ঘাঁটি বা উপস্থিতি রয়েছে।