সিরাজগঞ্জে দিনেও লাঠি হাতে পেঁয়াজ পাহারায় কৃষাণ-কৃষাণী

13

স্টাফ রিপোর্টার: লাঠি হাতে পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা। ছবি: যুগান্তরপেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার কৃষাণ-কৃষাণীরা দিনের বেলায়ও লাঠি হাতে পেঁয়াজ পাহারা দিচ্ছেন।

এ বছর রবি মৌসুমে ৪০ হেক্টর জমিতে আগাম জাতের পেঁয়াজ চাষ করা হয়েছে। এ পরিমাণ জমি থেকে এ বছর ৪৮০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ উৎপাদন হবে বলে স্থানীয় কৃষি অফিস জানিয়েছেন।

শাহজাদপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুস সালাম জানান, আর মাত্র ১৫ দিন পর থেকে এ সব জমির পেঁয়াজ উঠতে শুরু করবে। এ পরিমাণ জমির পেঁয়াজ উঠলে এলাকার চাহিদা পূরণ করেও কৃষকেরা বাইরে বিক্রি করে অধিক লাভবান হবেন। এ পেঁয়াজ উঠলে শাহজাদপুরের বাজারও স্থিতিশীল হবে।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলার পোতাজিয়া ইউনিয়নের চরা চিথুলিয়া গ্রামের পেঁয়াজ চাষী রেজাউল করিম সরকার, পেঁয়াজ চাষে বিঘা প্রতি তাদের ৪০-৫০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। ফলন ভালো হলে বিঘা প্রতি তাদের ৭০-৮০ হাজার টাকা লাভ হবে।

তারা আরও বলেন, সাধারণত এ এলাকার জমি থেকে পেঁয়াজ চুরি হয় না। কিন্তু এ বছর পেঁয়াজের দাম বেশি হওয়ায় ও বাজারে ব্যাপক চাহিদা থাকায় চুরির আশংকায় এবং গরু-ছাগলের আ’ক্রমণ থেকে পেঁয়াজ রক্ষায় তারা এ বছর অধিকাংশ পেঁয়াজের জমিতে নেট দিয়ে ঘিরে রেখেছেন। এ ছাড়া পালা করে রাতে ও দিনে পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা দিচ্ছেন।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলার রূপবাটি ইউনিয়নের পেঁয়াজ চাষী আঙ্গুরি খাতুন, আব্দুল গফুর ও শফি উদ্দিন বলেন, খবর শুনছি বিভিন্ন স্থানে ক্ষেত থেকে পেঁয়াজ চুরি হচ্ছে। তাই পেঁয়াজ রক্ষায় ক্ষেত পাহারা দিচ্ছি।

তারা আরও জানান, বাজারে পেঁয়াজের দাম বেশি হওয়ায় রাতের আঁধারে কিছু কিছু জমিতে পেঁয়াজ চুরির ঘটনা ঘটছে। ফলে তারা রাত জেগে ক্ষেত পাহারা দিচ্ছেন। যাদের জমি বাড়ি থেকে বেশ দূরে তারা দিনেও পাহারা দিচ্ছেন।

Loading...