অনেকে নিজেদের স্বার্থ হাসিলের জন্য পরিবহন শ্রমিকদের উস্কে দেয়া হয়েছে: ভিপি নুর

175

পরিবহন শ্রমিকদের ধর্মঘটে উসকানি রয়েছে মন্তব্য করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বাস ভাঙচুরের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ ও জড়িদের শাস্তি দাবি করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্রসংসদ (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুর।

তিনি বলেছেন, শ্রমিকদের আন্দোলন নি:সন্দেহে উসকানিমূলক। আপনারা জানেন যে, এই পরিবহন সেক্টরকে কারা উসকে দেয়। অনেকে নিজেদের স্বার্থ হাসিলের জন্য, সরকারকে একটা মেসেজ দেয়ার জন্য এই শ্রমিকদের রাস্তায় নামায়, সরকার যেন তাদের স্বার্থ পূরণ করে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ডাকসুর আয়োজনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসের ওপর হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে রাজু ভাস্কর্যে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

পরিবহন শ্রমিকদের আন্দোলনে সাধারণ মানুষের ভোগান্তির বিষয়টি তুলে ধরে নুর বলেন, আন্দোলন মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার। আমরা ছাত্ররা যখন নিরাপদ সড়ক আন্দোলন করেছি, আমরা তো কোনো গাড়ির গ্লাস ভেঙ্গে দিইনি। কারো মুখে মবিল, কালি মেখে দিইনি। তাহলে পরিবহন শ্রমিকরা কেন সাধারণ মানুষের মুখে মবিল মেখে দেবে? তাদের স্বার্থে আঘাত লাগলে তারা আন্দোলন করতে পারে কিন্তু সাধারণ মানুষের মুখে কালি মেখে দেবে এটা কেমন?

ডাকসু ভিপি নুর বলেন, রাস্তায় যে যানবাহন চলে সেগুলোর ৬০ ভাগ ফিটনেসবিহীন এবং ৪০ ভাগ লাইসেন্সবিহীন।

শিক্ষার্থীদের অভিভাবক হিসাবে ডাকসুর পরিবহন সম্পাদককে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে মামলার বাদী হতে তাগিদ দিয়ে ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, পরিবহন সম্পাদককে বলব, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন যদি মামলা না করে, তাহলে তিনি যেন ছাত্রদের অভিভাবক হয়ে মামলার বাদী হন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের ওপর আঘাত করার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসের ওপর আঘাত করার দুঃসাহস যেন আর কেউ না দেখায়।

নুর আরও বলেন, যখন সরকার পরিবহন ব্যবস্থায় কঠোর আইন প্রয়োগ করতে যাচ্ছে, তখন তারা এমন একটি হুজুগে আন্দোলন শুরু করেছে।বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরিবহন পরিষদের আহ্বায়ক মোবারক হোসেন বলেন, যদি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে আবার হামলা করা হয় তাহলে আমরা শক্ত অবস্থানে যাবো।এসময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি শিক্ষার্থীদের পক্ষে অবস্থান নিয়ে হামলাকারীদের যথাযথ শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।