নাগরিকত্ব তালিকা থেকে হিন্দুদের বাদ দেয়া ঠিক হয়নি: বিজেপি নেতা

272

স্টাফ রিপোর্টার:
আসামের মন্ত্রী হেমন্ত বিশ্ব শর্মা জানিয়েছেন, ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামের জাতীয় নাগরিকত্ব তালিকা বা এনআরসি থেকে হিন্দু অভিবাসীদের বাদ দেয়া উচিত হয়নি।
এই তালিকাকে ত্রুটিপূর্ণ বলে উল্লেখ করেছেন বিজেপি এই নেতা।

শনিবার সকালে আসামের নাগরিকত্ব তালিকা প্রকাশ করা হয়। এর ফলে ১৯ লাখ মানুষ অবৈধ অভিবাসী হিসেবে চিহ্নিত হয়। এদের মধ্যে বেশিরভাগই মুসলিম ধর্মাবলম্বী। তবে তালিকায় হিন্দু অভিবাসীদের নাম থাকায় অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন হেমন্ত বিশ্ব শর্মা।

এনডিটিভিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, বিজেপি এই তালিকা পুনরায় যাচাই করার জন্য সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বিজেপি আসামে এনআরসি সমর্থন করেছিল। কিন্তু আমরা এখন দেখছি এখানে বেশ কিছু ফাঁক রয়েছে।
আসামের এই মন্ত্রী বলেন, ‘হিন্দু অভিবাসীদের ছোট একটি অংশ এনআরসি থেকে বাদ পড়েছে। অথচ তাদের শরণার্থী সার্টিফিকেট ছিল। কিন্তু তা উপেক্ষা করা হয়েছে।’

তিনি জানান, আগামী সংসদ অধিবেশনে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশ করানোর অঙ্গীকার করেছে বিজেপি সরকার। এই বিলের লক্ষ্য হল, প্রতিবেশি পাকিস্তান এবং বাংলাদেশ থেকে যাওয়া হিন্দু অভিবাসীরা যেন সহজেই ভারতের নাগরিকত্ব পেতে পারে।

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলকে সাম্প্রদায়িক এবং পক্ষপাতমূলক বলে উল্লেখ করেছেন অ্যাকটিভিস্ট এবং বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো।
বিজেপি এই নেতা তাদের সঙ্গে একমত নন বলে জানান। তিনি দাবি করেন, বাংলাদেশ এবং পাকিস্তানে সংখ্যালঘুরা নিগৃহীত হচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘ধর্মীয় কারণে যদি কোন হিন্দু অভিবাসীকে তাদের দেশ থেকে বিতাড়িত হতে হয় এবং তাদের আশ্রয় দেয়া যদি সাম্প্রদায়িক হয়, তাহলে সাম্প্রদায়িকতা এবং ধর্মনিরপেক্ষতার সংজ্ঞা কি তা আমি বলতে পারি না।’
ধর্মীয় পরিচয় ছাড়া সব শরণার্থীকে আশ্রয় দেয়ার ব্যাপারে হেমন্ত বিশ্ব শর্মা জানান, ভারত কোন ধর্মশালা নয়।

Loading...