ডকাতিসহ একাধিক মামলার আসামি হেলালকে গণপিটুনির দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

89

চট্টগ্রামের বাঁশখালীর পুর্ব পুইছড়ি দক্ষিণ পাড়া এবং অপরদিকে পেকুয়া উপজেলার টইটং ইউনিয়নের জুমপাড়া বরইতলী দুজায়গায় বাড়ি রয়েছে হেলাল উদ্দিন প্রকাশ হেলাল ডাকাতের (৩৫)।বাঁশখালী অপরাধ করে যায় পেকুয়ায় আর পেকুয়ায় অপরাধ করে চলে আসে বাঁশখালীর পুইছড়ি পাহাড়ি এলাকায়। এভাবে দীর্ঘদির বিচরন করেও শেষ রক্ষা হয়নি তার।

জনতা গনপিটুনি দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে। আর বাশঁখালী থানা পুলিশের এসআই নাজমুল হাসান তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে শুক্রবার আদালতে সোপর্দ করেছে বলে থানা সুত্রে জানা গেছে।
হেলাল উদ্দিন পেকুয়ার টইটং ইউনিয়নের জুমপাড়া বরইতলী এলাকার মৃত বদি আলম প্রকাশ কালুর পুত্র।

জানা যায় হেলাল উদ্দিন এর বাবার বাড়ি পেকুয়ার টইটং ইউনিয়নের জুমপাড়া বরইতলী এলাকায়। আর নানার বাড়ি বাঁশখালীর পুইঁছড়ি  ইউনিয়নের পুর্ব পুইছড়ি দক্ষিণ পাড়া এলাকায়। ছোট কাল থেকে নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়া হেলাল নানা অপরাধ করে একেক সময় একেক জায়গায় অবস্থান নিত। ফলে পুলিশের তার নাগাল পাওয়া ছিল অনেক কষ্টসাধ্য।

ধৃত হেলালের বিরুদ্ধে অসংখ্যা অভিযোগ মামলাসহ পেকুয়ার অন্যতম হ’ত্যাকান্ড আওয়ামী লীগ নেতা ও মুক্তিযোদ্ধা ফরাজী হথ্যামামলায় সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ রয়েছে আর গত ফেব্রয়ারিতে বাঁশখালীর পুর্ব পুইছড়ি দক্ষিণ পাড়া এলাকায় জায়গা দখলের অভিযোগে আবদুস সালাম বাদী হয়ে করা মামলায় ২নং আসামী।

এ ব্যাপারে বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রেজাউল করিম মজুমদার বলেন হেলালের বিরুদ্ধে বাঁশখালী থানায় ১টি মামলা রয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে জনতার গনপিটুনির কবল থেতে তাকে উদ্ধার করে পুলিশ আদালতে সোর্পদ করেছে।