বিশ্বনাথে ইউএনও’র মোবাইল নাম্বার ক্লোন করে চাঁদা দবি

97

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মোবাইল নাম্বার ‘ক্লোন’ করে উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাঁদা দাবি করে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা। শনিবার সকাল থেকে বিভিন্ন সময়ে প্রতিষ্ঠান প্রধানদের কথিত বরাদ্দ পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে টাকা চাওয়া হয়। মুঠোফোন নাম্বার ‘ক্লোন’ হওয়ার কথা জানিয়ে ইউএনও শনিবার বিকেলে ফেসবুকে স্ট্যাটাসও দিয়েছেন। স্ট্যাটাসে তিনি এ বিষয়ে সবাইকে সর্তক থাকার অনুরোধ জানান।

স্থানীয় কয়েকটি স্কুল, কলেজ ও মাদরাসা প্রধানরা জানান, শনিবার বিভিন্ন সময়ে উপজেলার রামসুন্দর উচ্চ বিদ্যালয়, হাজী মফিজ আলী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজ ও লতিফিয়া ইরশাদিয়া দাখিল মারাসাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান প্রধানদের ইউএনও’র নাম্বার থেকে ফোন করা হয়। ফোনে তাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্যে কম্পিউটার ও ল্যাপটপের জন্যে সরকারি বরাদ্দ এসেছে বলে জানানো হয়। এজন্যে প্রত্যেককে বিকাশে ৮-১০ হাজার টাকা দিতে হবে। টাকা দিলেই বরাদ্দ পৌঁছে দেওয়া হবে। এক পর্যায়ে কণ্ঠস্বর শুনে প্রতিষ্ঠান প্রধানদের সন্দেহ হয়। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে যোগাযোগ করে বিষয়টি ভুয়া বলে নিশ্চিত হন তারা।

এদিকে ঘটনা জানার পর ওই নাম্বারে যোগাযোগ করেন ইউএনও। পরিচয় গোপন রেখে, তিনি কৌশলে দুর্বৃত্তকে জানান, এই ফোনে কথা শুনতে অসুবিধা হচ্ছে। পরে তাক্ষণিক ইউএনওকে বিকল্প একটি মোবাইল নাম্বার দেয় দুষ্টচক্র।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মো. কামরুজ্জামান বলেন, নাম্বার ‘ক্লোন’ করে টাকা হাতিয়ে নিতে চেয়েছিল দুর্বৃত্তরা। সবাই সচেতন থাকায় পারেনি। ইতিমধ্যে আমরা আইনি প্রক্রিয়ায় তাদের শনাক্ত করার চেষ্ঠা শুরু করেছি।