ছাত্রলীগ নেতার ‘কিস্তি’ পরিশোধে ব্যর্থ হয়ে গৃহবধূর আ ত্মহত্যা

246

স্টাফ রিপোর্টার: ছবি: সংগৃহীতমাগুরায়
ঋণে জর্জরিত এক গৃহবধূ কীটনাশক পানে আত্ম হত্যা করেছেন। রিনা বিশ্বাস (৪০) নামে ওই গৃহবধূ মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার হরিন্দি গ্রামের স্বরজিত বিশ্বাসের স্ত্রী।
প্রতিবেশীরা জানান, রিনার স্বামী স্বরজিত বিশ্বাস শ্রীপুর বাজারে মাছের ব্যবসা করে থাকেন। কিন্তু কোনোভাবেই ব্যবসায়ে উন্নতি করতে পারছিলেন না। এ অবস্থায় রিনা গত বছরের এপ্রিল মাসে সরকারের পল্লি দারিদ্র্য বিমোচন ফাউন্ডেশন থেকে ৪০ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে স্বামীর ব্যবসায় দেন।
কিন্তু সেখানে প্রতি সপ্তাহে তাকে ১ হাজার ৫০ টাকা কিস্তি দিতে হতো। সংসারের খরচ মিটিয়ে কিস্তির টাকা পরিশোধ করা তাদের জন্য খুবই কষ্টকর।

যে কারণে রিনা শ্রীপুর উপজেলা ছাত্রলীগের নেতা অপির কাছ থেকে এ বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে ৩০ হাজার টাকা সুদে টাকা নেন। কিন্তু তাকেও সপ্তাহে ১ হাজার ৫শ’ টাকা সুদ দিতে হয়। দিনে দিনে ঋণের বোঝা বাড়লেও তিনি কোনোভাবেই এ থেকে বের হতে পারছিলেন না।
রিনা বিশ্বাসের পুত্রবধূ কল্পনা রানী জানান, সর্বশেষ চার মাস আগে তার শ্বাশুড়ি আশা এনজিও থেকে নতুন করে ৩০ হাজার টাকা ঋণ নেন। এ অবস্থায় তিনটি ঋণের কিস্তির টাকা পরিশোধ নিয়ে বেকায়দায় পড়ে যান তিনি। প্রায় প্রতিদিনই কেউ না কেউ বাড়িতে কিস্তির টাকা নিতে আসে।

সর্বশেষ গত বুধবার রাত ৯টার দিকে ছাত্রলীগ নেতা অপি বাড়িতে এসে সুদের টাকা চাইলে তিনি ভেঙ্গে পড়েন। পরে রাত সাড়ে ১০টার দিকে তিনি ঘরে থাকা কীটনাশক খেয়ে আ ত্মহত্যার চেষ্টা চালান।
বিষয়টি জানতে পেরে তাকে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু অবস্থা খারাপ হওয়ায় তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে আজ শনিবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়।
এ বিষয়ে শ্রীপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান বলেন, ঋণের কারণে রিনা বিশ্বাসের মৃত্যুর খবর পুলিশের কাছে নেই। তবে সুদ কারবারিদের তৎপরতা বন্ধে বিভিন্ন সময়ে পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এটি নির্মূলে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

Loading...